× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



ঈশ্বরদীর পাকশী জুড়ে এনাম চেয়ারম্যানের অপরাধ সাম্রাজ্য

ইতিহাস টুয়েন্টিফোর  প্রতিবেদকঃ পাকশী ইউনিয়ন জুড়ে অপরাধের সাম্রাজ্য গড়ে তুলেছেন এনামুল হক বিশ্বাস ওরফে এনাম চেয়ারম্যানবালু বাণিজ্য,বালু উত্তোলন, মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ, পারমানবিক প্রকল্পের জমির ক্ষতিপূরণের সিন্ডিকেট গড়ে তোলা, পারমানবিক প্রকল্পের নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত গাড়ি সরবরাহ, নির্মাণ সামগ্রী সরবরাহ, প্রকল্পে শ্রমিক নিয়োগ, নিজস্ব বাহিনী দিয়ে সাধারণ মানুষকে  মারধর, মিথ্যা ও হয়রানীমূলক মামলা দায়েরসহ সকল অপরাধমূলক কর্মকান্ডের সঙ্গে জড়িত রয়েছে এনাম বিশ্বাসের নামসর্বশেষ পাকশীর বিভিন্ন হত্যাকান্ডের সঙ্গেও এনাম বিশ্বাসের আত্মীয়রা জড়িত বলে অভিযোগ উঠেছে 

এনাম বিশ্বাসের দুই ছেলে, ভাতিজা, ভাগ্নেসহ তাঁর পরিবার ও বংশের লোকজন পাকশী জুড়ে অপরাধের সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছেনঅবৈধ উৎস হতে এনাম গং এখন কোটি কোটি টাকার মালিকএনামের অবৈধ টাকা আর মতার দাপটে কাছে পাকশী ও রূপপুরের মানুষ এখন অসহায়এনাম গং এর অন্যায়ের প্রতিবাদ করলেই নেমে আসে নির্মম নির্যাতন 

পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এনাম বিশ্বাস অথচ তিনি সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের চেয়েও তিনি বেশি প্রভাবশালীএনামের অবৈধ প্রভাবপ্রতিপত্তির কারণে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের অনেকেই তার প্রতি তিক্ত-বিরক্তকিন্তু তারা প্রতিবাদ করার সাহস পাই নাকেউ প্রতিবাদ করলেই কৌশলে তাকে হুমকি,মারধর ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করা হয়   


পাকশী হার্ডিঞ্জ ব্রীজ সংলগ্ন এনাম চেয়ারম্যানের অবৈধ বালি বাণিজ্য।

২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ মতায় আসার পর দলের কতিপয় প্রভাবশালী নেতার ছত্রছায়ায় এনাম চেয়ারম্যান ধীরে ধীরে প্রভাব বিস্তার শুরু করেনপারমাণবিক প্রকল্পের কাজ শুরুর পূর্বেই বিবিসি বাজারের বিশ্বাসপাড়া এলাকায় পদ্মা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে কোটি কোটি টাকা মালিক হয়ে বনে যানএরপর মতাসীন দলের মনোনয়নে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর বেপরোয়া হয়ে উঠেন এনামএকের পর এক অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে তাঁর লোকজন 

পাকশী ও রূপপুর এলাকার পদ্মা নদীর বেশ কয়েকটি স্পট থেকে একসময় বালু উত্তোলন করতেন এনাম বিশ্বাসপ্রশাসনের নজরদারীর কারণে পাকশী এলাকায় বালু উত্তোলন বন্ধ হয়ে গেলে হার্ডিঞ্জ ব্রীজের পাশে বিশাল বালু বাণিজ্যের নিয়ন্ত্রণ নেয় এনাম বিশ্বাসএই বালু মহাল থেকে  দুইশত থেকে  তিনশত ট্রাক বালু প্রতিদিন বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হয়বালুর গাড়ি প্রতি দুই থেকে তিনশ টাকা চাঁদা আদায় হয়প্রতিদিন বিপুল পরিমাণ চাঁদার এই অর্থ নিয়ন্ত্রণ করেন এনামের নিজস্ব লোক হিসেবে পরিচিত হিটলু 

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে শ্রমিক নিয়োগ, পণ্য ও যাত্রীবাহী গাড়ি সরবরাহ, পাথর,বালুসহ বিভিন্ন নির্মাণ সামগ্রী সরবরাহে এনামের একগুচ্ছ আধিপত্যএনামের ভাতিজা আব্দুল­াহ আল বাকী ওরফে আরজু পারমাণবিক প্রকল্পের এসব কাজ দেখভাল করতেনএছাড়াও শ্রমিক নিয়োগ বাণিজ্য করেন এনামের ভাগ্নে আনোয়ার হোসেন ওরফে আরিফ 


পাকশীর রূপপুর পদ্মা নদী থেকে অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের প্রতিবাদে এলাকাবাসীর ঝাড়ু মিছিল।  ছবি- ২৪ জানুয়ারি, ২০১৮।

রূপপুর প্রকল্পে পদ্মার চরের ৯৯০ একর খাস জমিতে চাষাবাদকারী কৃষকদের ক্ষতিপূরণের নামে প্রায় ২৮ কোটি টাকা লোপাটের মূলহোতা এনাম চেয়ারম্যান। ক্ষতিগ্রস্ত ভুয়া কৃষকের ৭৭৫ জনের তালিকা নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেঅবশেষে নানা ফাঁকফোকর পেরিয়ে এনাম বিশ্বাসের নেতৃত্বে কৃষকদের নামে ক্ষতিপূরণের টাকা উত্তোলন শুরু হয়কয়েকদফা টাকা উত্তোলন ইতিমধ্যে হয়েছে। ক্ষতিপূরণের এই টাকা নিয়েও স্থানীয়দের নানা অভিযোগ রয়েছে 

পাকশী ও রূপপুরে বালু উত্তোলন বন্ধ হওয়ার পর সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সাঁড়া এলাকায় পদ্মা নদী থেকে বালু উত্তোলন করেছেন এনাম বিশ্বাসঅবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ফলে নদী রা বাঁধ হুমকির মুখে পরতে পারে এমন আশংকা করছেন স্থানীয় বাসিন্দারা 

পাকশী জুড়ে এখন এক আতংকের নাম রকিএনাম বিশ্বাসের ছোট ছেলে রকি পাকশীর অঘোষিত রাজপুত্রতাঁর বিরুদ্ধে মাদক বাণিজ্য ও স্থানীয়ভাবে নিজস্ব বাহিনী গড়ে তোলার অভিযোগ রয়েছেরূপপুরে একজন আইনজীবীর বাড়ি ভাড়া নিয়ে সেই বাড়িতে অনৈতিক কর্মকান্ড করার অভিযোগও রয়েছে রকির বিরুদ্ধেরূপপুর পারমানবিক প্রকল্পের মাটি ভরাট কাজে বাঁধা ও চাঁদা দাবি করায় ২০১৭ সালে ৩০ এপ্রিল আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ৩০ রাউন্ড গুলিসহ গ্রেফতার হয়েছিল রকিকারাগার থেকে বেরিয়ে সে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠেরকির বিরুদ্ধে একাধিক মামলাও রয়েছেএনাম বিশ্বাসের বড় ছেলে রনি বালু বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িতএছাড়াও বেশ কিছু ঠিকাদারী কাজকর্মও সে দেখাশুনা করেন 


পাকশী হার্ডিঞ্জ ব্রীজের নিকটাবর্তী পদ্মা নদী থেকে এনাম চেয়ারম্যানের অবৈধ বালি উত্তোলন।

৬ ফেব্রুয়ারি রাতে পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান সেলিম হত্যার পর ফুঁসে উঠেছে পাকশী ও রূপপুরের মানুষএ হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ এনাম বিশ্বাসের ভাতিজা আরজু বিশ্বাসকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছেনআরজু স্থানীয়ভাবে পাকশীর অপরাধ জগতের শিরোমনি হিসেবে পরিচিততাঁর বিরুদ্ধে আরো একটি হত্যা মামলা রয়েছেএছাড়াও রূপপুরের মানুষজন এখন আওয়াজ তুলতে শুরু করেছেন পাকশীর অপরাধ জগতের শিরোমনি আরজু বিশ্বাস ছাত্রলীগ নেতা লাবলু ও পিন্টু হত্যার সঙ্গেও জড়িত থাকতে পারেপুলিশ রিমান্ডে থাকা আরজুকে এসব হত্যাকান্ড সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদের দাবিও জানিয়েছেন রূপপুরের মানুষসেলিম হত্যাকান্ডের পর এনাম বিশ্বাসের থলের বিড়াল বেরিয়ে আসতে শুরু করেছেএমনকি সেলিম হত্যাকান্ডের সঙ্গে এনাম বিশ্বাসও জড়িত থাকতে পারে বলে অনেকেই মন্তব্য করছেননিহত সেলিমের পুত্র তানভীর রহমান তন্ময় রূপপুর বিবিসি বাজারে এক প্রতিবাদ সভায় এনাম চেয়ারম্যানকে অভিযুক্ত করে বলেন, এনাম চেয়ারম্যান তাদের বাড়িতে গিয়ে রূপপুরে প্রকল্পের কৃষকের ক্ষতিপূরণের টাকার ব্যাপারে বাবাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়েছিলেন  

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক রূপপুরের একাধিক ব্যক্তি বলেন, এনাম কেন প্রভাবশালী, কারা রয়েছে তার পেছনে এটা সবাই জানেএনাম বিশ্বাসের কাছে রূপপুর ও পাকশীর মানুষ জিম্মি হয়ে পড়েছেনমুক্তিযোদ্ধা সেলিম হত্যা মামলায় জড়িত আরজু বিশ্বাস অবৈধ টাকার জোরে বেরিয়ে আসতে পারে বলেও অনেকেই আশংকা প্রকাশ করেছেন 
পাকশী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেন, চেয়ারম্যান এনামুল হক বিশ্বাসের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ রয়েছে এতে দলের নেতাকর্মীরা বিব্রত 

পাকশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হাবিবুল ইসলাম হব্বুল বলেন, এসব বিষয় নিয়ে নতুন করে কিছু বলতে চাই নাআপনারা সাংবাদিকরা সবাই সবই জানেনপত্র-পত্রিকায় অনেক খবর এসেছেতাই নতুন করে কিছু বলার আছে বলে মনে করি না

এসব অভিযোগ প্রসঙ্গে এনামুল হক বিশ্বাস বলেন, আমার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ সত্য নয়মুক্তিযোদ্ধা সেলিম হত্যার সঙ্গে আমার কোন সর্ম্পক নেইষড়যন্ত্রমূলকভাবে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

কোন মন্তব্য নেই