× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধন আজ, ঈশ্বরদীতে যাত্রাবিরতি নেই

( ফাইল ফটো)। 
দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় এলাকার যাত্রীদের সুবিধার্থে ঈদের আগেই চালু হচ্ছে বিরতিহীন ট্রেন সার্ভিস ‘পঞ্চগড় এক্সপ্রেস’।  আজ ২৫ মে (শনিবার) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ ট্রেনটি উদ্বোধন করবেন।
গতকাল শুক্রবার দুপুরে ট্রেনটি চলাচলের প্রস্তুতি যাচাইয়ে পঞ্চগড় রেল স্টেশন পরিদর্শন করেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। বিরতিহীন বনলতা এক্সপ্রেসের পর দীর্ঘতম এই রেলপথে চলাচল করবে এই ট্রেনটি। ৫৯৩ কি.মি. দীর্ঘ পঞ্চগড়-ঢাকা রেলপথে দ্রুতগতির এই ট্রেন ১০ ঘণ্টায় পঞ্চগড় থেকে ঢাকা পৌঁছানোর কথা।
‘পঞ্চগড় এক্সপ্রেস’ নামে বিরতিহীন এই ট্রেনটি বৃহত্তর দিনাজপুর এলাকার মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উপহার বলে জানান রেলমন্ত্রী সুজন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের জিএম খন্দকার শহিদুল ইসলাম, প্রধান প্রকৌশলী আফজাল হোসেন, জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার সাদাত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এহেতেশাম রেজা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুদর্শন কুমার রায়, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলামসহ রেলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। 
রেল স্টেশন পরিদর্শন শেষে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন সাংবাদিকদের জানান, ‘পঞ্চগড় এক্সপ্রেস’ নামে বিরতিহীন ট্রেনটি বৃহত্তর দিনাজপুর এলাকার মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার। এই ট্রেন ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর, এবং দিনাজপুরের পার্বতীপুর যাত্রা বিরতির পর পঞ্চগড় থেকে ঢাকা বিরতিহীন চলাচল করবে।
‘ট্রেনটি প্রতিদিন দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটে পঞ্চগড় থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে গিয়ে রাত ১০টায় ৩৫ মিনিটে ঢাকায় পৌঁছাবে এবং রাত ১২টা ১০ মিনিটে ঢাকা থেকে ছেড়ে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে পঞ্চগড় পৌঁছাবে। ট্রেনটি পঞ্চগড় থেকে ঢাকা যাতায়াতের সময় যাত্রাপথে শুধু ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর ও দিনাজপুরের পার্বতীপুর এবং ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশনে থামবে। এই ট্রেনটিতে আধুনিক সুযোগ সুবিধা থাকলেও ভাড়া একতা ও দ্রুতযানের সমান রাখা হবে। ট্রেনটির ৩০ শতাংশ আসন পঞ্চগড়ের জন্য, ৩০ শতাংশ দিনাজপুর, ২৫ শতাংশ ঠাকুরগাঁও এবং ১৫ শতাংশ পার্বতীপুরের যাত্রীদের জন্য নির্ধারিত থাকবে। প্রায় এক হাজার যাত্রী ধারন করবে ট্রেনটি।’
এদিকে, পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনটি  ঈশ্বরদী বাইপাস স্টেশন হয়ে চলাচল করলেও এখানে কোন যাত্রাবিরতি নেই। বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের মতো পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনটিও ঈশ্বরদীবাসী শুধু তাকিয়ে দেখা ছাড়া আর কোন উপায় নেই।  

কোন মন্তব্য নেই