× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



ঈশ্বরদীতে ভুল চিকিৎসায় শিশুর মৃত্যু, স্বজনদের বিক্ষোভ



ইতিহাস টুয়েন্টিফোর প্রতিবেদকঃ
ঈশ্বরদীর আরামবাড়িয়াস্থ সাঁড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারের ভুল চিকিৎসায় মিশকাত হোসেন (১ মাস ২৫ দিন) বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।
এ ঘটনায় বিক্ষুদ্ধ স্বজনরা চিকিৎসকের শাস্তি দাবি করে শ্লোগান দেন। অভিযুক্ত উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ইকবাল হোসেন পালিয়েছে।  পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

জানা যায়, লালপুর উপজেলার এবি ইউনিয়নের পাটিকাবাড়ি গ্রামের সজিব আলীর ছেলে মিশকাত হোসেনকে  পাঁচ দিন আগে আরামবাড়িয়া বাজারের জয়ন্তের ঔষধের দোকানে চিকিৎসা দেন সাঁড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের চিকিৎসক ইকবাল হোসেন। তিনি বলেন, মিশকাতের প্রশ্বাবের সমস্যা রয়েছে। তাকে সুন্নাত (মুসলমানী) দিতে হবে। ওই দিন ঔষধ নিয়ে বাড়ি ফিরে যায় মিশকাতের বাবা-মা।  চিকিৎসক ইকবালের দেয়া সময় অনুযায়ী আজ শনিবার দুপুরে মিশকাতকে সুন্নাত (মুসলমানী) দেয়ার জন্য আনা হয় ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রে। সেখানে সুন্নাত দেয়ার পর শিশুটির মৃত্যু হয়।মৃত্যু নিশ্চিত জেনে স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকে পালিয়ে যায় ইকবাল। এরপর স্বজনরা বিক্ষোভ শুরু করলে ঈশ্বরদী থানা থেকে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। 
এরপর ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন সাঁড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমদাদুল হক রানা সরদার ও এবি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সাত্তার।  ‍দুই চেয়ারম্যান ও ঈশ্বরদী থানার তদন্ত কর্মকর্তা  স্বজনদের নিয়ে আলোচনায় বসেন। পরে মিশকাতের মরদেহ ঈশ্বরদী থানায় আনা হয়।

ঈশ্বরদী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত কর্মকর্তা)  অরবিন্দ সরকার বলেন, পরিবেশ এখন নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। মিশকাতের মরদেহ ঈশ্বরদী থানায় আনা হয়েছে। মিশকাতের বাবা ট্রাক চালক সে নরসিংদীতে রয়েছেন। তিনি  এলেই এ ব্যাপারে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। 

কোন মন্তব্য নেই