× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের প্রধান ফটকে তালা, বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা ভেঙ্গে ফেললো সে তালা


ইতিহাস টুয়েন্টিফোর প্রতিবেদকঃ
ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের প্রধান ফটক তালাবদ্ধ করার ঘটনায় শিক্ষার্থীরা কলেজের সামনে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছেএক পর্যায়ে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ফটকের তালা ভেঙ্গে ফেলে

আজ সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে তালা ভেঙ্গে ফেলার সময় বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা অধ্যক্ষ, ভূমিদস্যু ও কয়েকজন শিক্ষকের বিরুদ্ধে শ্লোগান দেন এবং তাদের অপসারণ দাবি করেন 

উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও অত্র কলেজের ছাত্র রাকিবুল হাসান রনি প্রধান ফটকে তালা মারার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, ভুমিদস্যুদের মদদে অসৎ উদ্দেশ্যে অধ্যক্ষ গেট তালাবদ্ধ করেছেনএসময় তিনি অধ্যক্ষ আব্দুর রহিম,  কলেজের শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সাধারণ সম্পাদক মুরালি মোহন দাস, ইংরেজি বিভাগের প্রধান রবিউল ইসলাম, রসায়ন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক  রবিউল ইসলাম ও দর্শন বিভাগের প্রধান নজরুল ইসলামের অপসারণ দাবি করেন।
ছাত্রলীগ সভাপতি আরো বলেন, ভূমিদুস্যদের সঙ্গে  আতাঁত করে কলেজের জমি  অধ্যক্ষ অবৈধভাবে ভূমিদস্যুদের হাতে তুলে দেয়ার পায়তারা করছেন।  কলেজের সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীরা তা কখনও মেনে নিবে না। 

ঘটনাস্থলে উপস্থিত থানার অফিসার ইনচার্জ বাহাউদ্দিন ফারুকী বলেন, পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করে দেখছেকলেজের অধ্যক্ষসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে

জানা যায়, কলেজের সামনের ১.২৭ একর ব্যক্তি মালিকানাধীন জমি নিয়ে কলেজের সাথে দীর্ঘদিন মামলা-মোকদ্দমা চলছেএই মামলা উচ্চ আদালতে বিচারাধীন। গতকাল রবিবার  কোন এক সময় কলেজের প্রধান ফটকে কর্তৃপক্ষ তালা লাগিয়ে দেয়। আজ সোমবার সকালে বিষয়টি কলেজের প্রধান ফটকের তালা লাগানো দেখে শিক্ষার্থীরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেন। 

কলেজের সামনের জমির মামলার বাদী মহিউদ্দিন ফোনে জানান, আমরা সকল ক্ষেত্রেই আদালতের রায় পেয়েছিএরআগে হাইকোর্ট ওই জমি মন্ত্রণালয় হতে অধিগ্রহনের জন্য কলেজের অধ্যক্ষকে কার্যক্রম করার আদেশ দেনকিন্তু অধ্যক্ষ অধিগ্রহনের কার্যক্রম না করে আপীল করেনএজন্য উচ্চ আদালত আজ সোমবার অধ্যক্ষকে আদালতে স্বশরীরে হাজির হওয়ার জন্য তলব করেছে

প্রধান ফটক তালাবদ্ধকরণ প্রসঙ্গে ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সহযোগী অধ্যাপক মুরারী মোহন দাস বলেনঅধ্যক্ষ স্যার ফোনে নির্দেশ দেয়ায় প্রধান ফটকে তালা মারা হয়েছিল। তবে পশ্চিম পাশের পকেট গেট খোলা ছিল। 

 ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আব্দুর রহিমের কাছে এব্যাপারে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কলেজের সামনের ১.২৭ একর জমি নিয়ে মামলা চলমান রয়েছে। কলেজের প্রধান ফটক ও প্রবেশ পথ ওই জমির উপর। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী  ফটকে তালা মারা হয়েছে। তবে কলেজের শিক্ষার্থীদের জন্য পেছনে একটি গেট তৈরি করে দেওয়া হবে। হাইকোর্টে তলবের সত্যতা স্বীকার করে তিনি বলেন, বিচারাধীন মামলা প্রসঙ্গে কোন বলতে চাই না। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেকই কাজ করছিতিনি আরো বলেন, জমি-জমা নিয়ে মামলা-মোকদ্দমার বিষয়ে আমরা শিক্ষক মানুষ কিছুই বুঝি নাতাই আমি ও উপাধ্যক্ষ বদলীর জন্য ইতোমধ্যেই উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানিয়েছি। 

কোন মন্তব্য নেই