× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



আসেনি সরকারি বরাদ্দ; ঈশ্বরদীতে বিশেষ ব্যবস্থায় করোনার নমুনা সংগ্রহ শুরু

এস এম রাজা-
ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ্যাম্পুল ও স্টীকের অভাবে করোনার নমুনা সংগ্রহ বন্ধ হবার ৬দিন পার হলেও সরকারি কোন বরাদ্দ আসেনি আজ ১৬ জুন মঙ্গলবার পর্যন্ত।অন্যদিকে নমুনা প্রদানকারীর সংখ্যা বাড়ছে হু হু করে।

ঈশ্বরদী একটি প্রথম শ্রেনীর উপজেলা। এখানকার নিজস্ব জনসংখ্যা প্রায় সাড়ে ৩ লাখ। এরসাথে যুক্ত হয়েছে রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প ও আইইপিজেডসহ বিভিন্ন বেসরকারি শিল্প প্রতিষ্ঠানের বহিরাগত শ্রমিক কর্মচারী ও কর্মকর্তা মিলিয়ে প্রায় ৩০ হাজার। সরকারি ভাবে প্রাপ্ত এম্পোল ও স্টীক দিয়ে এ পর্যন্ত সর্বমোট ৭৩৪জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। 

এরপরই গত ১১জুন নমুনা সংগ্রহ বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় এক সপ্তাহ বন্ধ থাকার কারনে নমুনা প্রদানকারীর সংখ্যা বাড়তে থাকে বহগুন। সাধারণ মানুষ স্টীক আর এ্যাম্পুল আসার অপেক্ষায় থাকতে পারলেও রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের শ্রমিক কর্মচারীদের অপেক্ষা করা কষ্ট সাধ্য তাই তাদের পক্ষ থেকে ও অন্য একটি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে জরুরি কাজ চালিয়ে নেয়ার জন্য ৭শ এ্যাম্পুল ও স্টীকের ব্যাবস্হা করা হয়েছে। তাই দিয়েই আজকে থেকে আবার নমুনা সংগ্রহ শুরু হলো তবে কয়দিন যাবে সে ব্যাপারে নিশ্চিত করে কিছুই বলা যাচ্ছে না। 

বন্ধ থাকার পর আজকে সংগ্রহ শুরুর প্রথম দিনেই নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৫০ জনের। এরমধ্যে ১০জন বাদে সবাই রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের শ্রমিক। এনিয়ে ঈশ্বরদীতে আজ পর্যন্ত নমুনা সংগ্রহ করা হলো ৮৮৪ জনের। এর মধ্যে করোনা পরীক্ষার জন্য ঢাকা ও রাজশাহী ল্যাবে পাঠানো হয়েছে ৭৩৪ জনের। প্রাপ্ত রিপোর্ট ৪৪৮ জনের। রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে ১৬ জনের। 

বহিরাগত পজিটিভ ৪জন। ঈশ্বরদীর বাসিন্দা ঢাকায় গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরন করেছে ৫ জন। করোনা উপসর্গ নিয়ে মারাগেছে ৪ জন। একরূপ সাহায্য হিসেবে প্রাপ্ত ৭শ এ্যাম্পুল ও স্টীক দিয়ে খুব বেশি হলে ৩ থেকে ৪ দিন চলতে পারে। সরকারি বরাদ্দ না এলে হয়তো আবারও নমুনা সংগ্রহ বন্ধ হয়ে যাবে। তাই ঈশ্বরদীর জনগুরুত্ব বিবেচনা করে জরুরি ভিত্তিতে ঈশ্বরদীতে এ্যাম্পুল ও স্টীক প্রেরনের দাবী জানিয়েছে এলাকাবাসী।

কোন মন্তব্য নেই