× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



‌১০০ দিন ধরে দুস্থদের রান্না করা খাবার দিচ্ছেন ঈশ্বরদীর ছিন্নমূল সেবা সংগঠন

ইতিহাস টুয়েন্টিফোর প্রতিবেদকঃ 
করোনা প্রাদুর্ভাবের শুরুতেই হতদরিদ্র ও ছিন্নমূল মানুষ যখন খাদ্যের অভাবে নিদারুন কষ্টে ভুগছিলেন ঠিক তখনই অসহায় এসব মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেন ঈশ্বরদীর ছিন্নমূল সেবা সংগঠনের সদস্যরা। এই সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা টানা ১০০ দিন ধরে অসহায় মানুষদের একবেলার খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন। প্রতিদিন রাতে অসহায় মানুষগুলো পেটভরে খেতে পেয়ে স্বস্তিবোধ  করছেন। 

করোনার এই সংকটময় মূহুর্তে মানুষ যখন ঘর থেকে বেরই হতে চান না তখন ছিন্নমূল সেবা সংগঠনের একদল স্বেচ্ছাসেবী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিনই অসহায় ও নিরন্ন মানুষের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছেন।  

আজ ১৬ জুলাই (বৃহস্পতিবার) ছিন্নমূল সেবা সংগঠনের খাদ্য বিতরণের ১০০দিন পূর্ণ হলো। প্রতিদিনই সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা নিজস্ব ও হৃদয়বান ব্যক্তিদের সহযোগিতায় এই কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। শহরের আলোবাগ মোড়ে ওয়াপদা গেট সংলগ্ন সংগঠনের অস্থায়ী কার্যালয়ে প্রতিদিন বিকাল থেকে শুরু হয় রান্না। একেক দিন একেক ধরনের খাবার তৈরি করা হয়। কোন দিন খিচুড়ি ভাত, মুরগী- ভাত, কোনো দিন ডিম- খাসির মাংস, সোলার ডাল,ভর্তা আবার কখনও বিরানী। প্রতিদিন রাত ৯টায় বাসটার্মিনাল, রেলওয়ে স্টেশন, রেলওয়ে ইয়ার্ড, বুকিং অফিসসহ ছিন্নমূল মানুষদের আশ্রয়স্থলে গিয়ে খাবার পরিবেশন করা হয়। ১০০ দিন ধরে চলমান অসহায় মানুষদের মাঝে রাতের খাবার বিতরণের কার্যক্রম চালু থাকায়  ছিন্নমূল মানুষগুলো সারাদিন যেভাবেই কাটুক রাতে তাদের ভরসা ওই খাবার। তারা জানেন রাতের  খাবার নিয়ে যথা সময় হাজির হবেন ছিন্নমূল সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা। 

ছিন্নমূল সেবা সংগঠনের সদস্য আফছার আলী বলেন, সমাজের বিভিন্ন হৃদয়বান ব্যক্তিদের সহযোগিতায় এই সংগঠনের রান্না করা খাবার বিতরণ কার্যক্রমের আজ ১০০ দিন পূর্ণ হয়েছে। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের শুরুতে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী দোকানপাট, হোটেল, রেস্তোরা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। তখন ভিক্ষুক,পাগলসহ অসহায় মানুষদের খাদ্যের অভাব দেখা দেয়। তাদের না খেয়ে থাকতে দেখে আমরা কয়েকজন মিলে তাদের রান্না করা খাবার পৌঁছে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিই। সেই থেকে এখনও পর্যন্ত এই কার্যক্রম চলমান রয়েছে। যতদিন পর্যন্ত হৃদয়বান ব্যক্তিরা সহযোগিতা অব্যাহত রাখবেন আমাদের এই কার্যক্রমও চলমান থাকবে। ইতিমধ্যে পাবনা জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সমাজের বিভিন্ন বিত্তবান ব্যক্তি সহযোগিতা করেছেন। আশাকরি ছিন্নমূল এসব মানুষদের মুখে খাবার তুলে দিতে তারা সহযোগিতা অব্যাহত রাখবেন। 

ছিন্নমূল সেবা সংগঠনের সদস্য ডাঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণের আজ ১০০ দিন পূর্ণ হয়েছে। এ উপলক্ষে  আজ রাতে দুস্থদের উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হয়।  ঈশ্বরদী পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম আজাদ মিন্টু আজ দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণের আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন। তিনি ছিন্নমূল সেবা সংগঠনের সদস্যদের উপস্থিতিতে  জংসন স্টেশনের বুকিং অফিসের সামনে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন। 

কোন মন্তব্য নেই