× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



আইপিএলে ৫ দিন পরপর করোনা টেস্ট, নিয়ম ভাঙলে কঠিন শাস্তি

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ চলছে। এরই মধ্যে আরব আমিরাতের মাটিতে আইপিএলর তেরোতম আসর আয়োজন করতে যাচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই। ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়ে শেষ হবে ১০ নভেম্বর। মোট ৫৩ দিনের টুর্নামেন্ট।

এত লম্বা একটি সময় ধরে অনুষ্ঠিত হবে আইপিএল, আটটি দলের খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তা, আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল, বিসিসিআই, ম্যাচ অফিসিয়াল, সম্প্রচারসহ নানা পর্যায়ের কর্মকর্তা মিলিয়ে মোট ১২০০ মানুষের এক বিশাল কর্মযজ্ঞ।

সুতরাং, করোনা সংক্রমের সমূহ সম্ভাবনা থাকছেই। সুতরাং, পুরো আইপিএলকে জৈবিক সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে রেখেই টুর্নামেন্ট আয়োজনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে রোববারের গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে।

সেই বৈঠকেই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে, করোনা রুখতে টুর্নামেন্টে অংশ নেয়া প্রতিটি ব্যাক্তিকেই ৫দিন পরপর টেস্ট করা হবে। এছাড়া স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ করলেই কঠোর শাস্তির বিধানের কথা ঘোষণা করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি ভঙ্গ করলে সঙ্গে সঙ্গে সাতদিন বিচ্ছিন্ন করে রাখা হবে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে। তিনি যে’ই হোন না কেন। সামনে কোনো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ থাকলেও সেই সাতদিন তাকে কোয়ারেন্টাইনে থাকতেই হবে।

শুধু তাই নয়, বিসিসিআইয়ের তৈরি করা ড্রাফটে দেখা যাচ্ছে, আরব আমিরাতের মাটিতে প্র্যাকটিস করতে নামার আগে প্রতিটি খেলোয়াড়কে ৫বার টেস্ট করা হবে এবং প্রতিটিতেই রেজাল্ট আসতে হবে নেগেটিভ। এরপরই কেবল তারা সুযোগ পাবে অনুশীলনে অংশ নেয়ার।

বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা পিটিআইকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আবার জানিয়েছেন, ‘ভারতের সব খেলোয়াড় এবং সাপোর্ট স্টাফকে একদিন ব্যবধানে দুইবার করে কোভিড-১৯ আরটি-পিসিআর টেস্ট করতে হবে। সেখানে নেগেটিভ আসার এক সপ্তাহ পর থাকতে হবে ১৪দিনের কোয়ারেন্টাইনে।


এছাড়া কোনো ব্যক্তির যদি পজিটিভ রেজাল্ট আসে, তাহলে তাকে অবশ্যই সঙ্গে সঙ্গে ১৪দিনের কোয়ারেন্টাইনে যেতে হবে। কোয়ারেন্টাইনের পরে তাকে অবশ্যই আরও দু’বার (একদিন ব্যবধান রেখে) কোভিড-১৯ আরটি এবং পিসিআর টেস্ট করতে হবে। দু’বারই নেগেটিভ রিপোর্ট আসার পর আরব আমিরাতের বিমানে ওঠার অনুমতি পাবেন।

শুধু আরব আমিরাতে যাওয়ার আগেই টেস্ট করা নয়, আরব আমিরাতে যাওয়ার পর এক সপ্তাহের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে ক্রিকেটারসহ সবাইকে। ওই এক সপ্তাহে টেস্ট করা হবে আরও তিনবার। প্রতিবারই নেগেটিভ রিপোর্ট আসার পর মাঠে অনুশীলনে নামার সুযোগ পাবেন ক্রিকেটাররা।

বিসিসিআইয়ের সেই কর্মকর্তা বলেন, ‘হয়তো বা দলগুলোর ফিডব্যাকের ভিত্তিতে প্রটোকলে ছোট কোনো পরিবর্তন আনা যাবে। কিন্তু খেলোয়াড় এবং কর্মকর্তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিসয়ে কোনো ছাড় দেয়া হবে না।’

আরব আমিরাতে পৌঁছার পর প্রথম সপ্তাহে খেলোয়াড়, কোচ কিংবা কর্মকর্তাদের কেউ কারো সঙ্গে দেখা-সাক্ষাত পর্যন্ত করতে পারবে না। তিনবার করোনা টেস্টে নেগেটিভ রিপোর্ট আসার পরই কেবল একজন আরেকজনের সঙ্গে দেখা করতে পারবে।

এতো গেলো ভারতীয় ক্রিকেটার এবং কর্মকর্তাদের ব্যাপারে নেয়া পদক্ষেপের কথা। কিন্তু বিদেশি ক্রিকেটার কিংবা কর্মকর্তা যারা সরাসরি আরব আমিরাতে এসে পৌঁছাবে, তাদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত কি? বিসিসিআইয়ের সেই কর্মকর্তা বলেন, ‘একই নিয়ম বিদেশিদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। বিমানে ওঠার আগে নিয়ম মতো দুটি টেস্ট এবং কোয়ারেন্টাইনে থেকে এরপর আসতে হবে। আর কেউ পজিটিভ হলে একইভাবে ১৪দিনের কোয়ারেন্টাইন এবং এরপর দুবার নেগেটিভ আসতে হবে। আরব আমিরাতে আসার পর তাদের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।’

বিসিসিআইর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আরব আমিরাতে পৌঁছার পর প্রথমদিনই একবার টেস্ট করা হবে। এরপর তৃতীয় দিন, সর্বশেষ ৬ষ্ঠ দিন টেস্ট করা হবে। এই তিন টেস্টে নেগেটিভ আসলে, এরপর অনুশীলনের অনুমতি। এছাড়া টুর্নামেন্ট চলাকালে (৫৩ দিনে) প্রতি ৫দিন পরপর প্রতিটি খেলোয়াড়, কর্মকর্তাসহ সবাইকে টেস্ট করা হবে।

কোন মন্তব্য নেই