× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



ঈশ্বরদীতে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‌‌‌‌`তারুন্য ৭১' এর আত্মপ্রকাশ ও পথ শিশুদের মাঝে খাদ্য বিতরণ


ইতিহাস টুয়েন্টিফোর প্রতিবেদকঃ 

ঈশ্বরদী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে তারুন্য ৭১ এর উদ্যোগে পথ শিশুদের মাঝে খাদ্য বিতরণ করা হয়। যাদের ঘরে খাবার নেই এমনি  অসহায় মানুষ, পথশিশু, দরিদ্র, খেটে খাওয়া মানুষ, যাদের আয় নেই এসব মানুষের জন্য একবেলা খাবার তুলে দেয়ার মাধ্যমে ঈশ্বরদীর স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন তারুন্য-৭১ এর আত্মপ্রকাশ ঘটে ।

 রোববার (৪ অক্টোবর) প্রথম উদ্যোগে ২০০ জনের  মাঝে এই খাবার বিতরনের মাধ্যমে এ মানবিক কর্মসূচি শুরু হল। এর আগে ঈশ্বরদী বাস টার্মিনালের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সোহানুর রহমান রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় দেশকে ভালোবাসার প্রতি সীমাহীন জোর প্রদান করে ঈশ্বরদী নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব ও মুক্তিযুদ্ধের শহীদ স্মৃতি পাঠাগারের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মোস্তাক আহমেদ কিরণ বলেন, ”সবার আগে দেশকে ভালোবাসতে হবে। তোমাদের মেধা  দেশের অগ্রগতির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বড় হয়ে কেউ বিজ্ঞানী কেউ ডাক্তার কেউ ইঞ্জিনিয়ার হবে তবে তার আগে সকলকে অবশ্যই ভালো মানুষ হতে হবে,সেই সঙ্গে দেশের জন্য অগাধ প্রেম থাকতে হবে। এদেশের বৃহৎ জনগোষ্ঠী সাধারণ মানুষকে ভালোবাসতে হবে। তোমরাই বড় হয়ে আমাদের সকল ব্যর্থতাকে সফলতায় ভরে দেবে।”

  সিনিয়র সাংবাদিক খন্দকার মাহবুবুল হক দুদু বলেন, ‘তারুণ্যের অনুপ্রেরণা বয়োজেষ্ঠ্যদর জন্যও অন্যতম উৎসাহ। তারুণ্যের হাত ধরে দেশ এগিয়ে যাবে আরও অনেক দূর’।

 
ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম শামিম বলেন, ‘আমি যদি ভালো হই, বাংলাদেশ ভালো হবে। আমি সুন্দর হলে দেশ সুন্দর হবে। আর আমি খারাপ হলে দেশও খারাপ হবে। তাই তোমরা ভালো কাজের সাথে আছো, ভালো কাজের সাথে থাকবে।'

 এ সময় অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন বিনা পয়সার পাঠশালা খ্যাত সাদা মনের মানুষ শিক্ষক তাহেরুল ইসলাম, সংগঠনের আহবায়ক সোহানুর রহমান, সদস্য রিয়াদ ইসলাম ও খোন্দকার সাজিদ মাহমুদ মিথুন প্রমুখ। 

এ বিষয়ে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আসিফ সালেহিন বিশাল বলেন, ভালো কাজের জন্য দরকার ইচ্ছাশক্তি। ইচ্ছা থাকা এবং যত দ্রুত সম্ভব সেটা কার্যকর করা দরকার৷ এখানে চিন্তা করার সুযোগ নেই৷ যতটুকু সাধ্য ততটুকুর মধ্যে করে ফেলতে হবে৷ তাই বলছি ভালো কাজের জন্য বেশি চিন্তা করার সুযোগ নেই৷

কোন মন্তব্য নেই