× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



vvv২৮৫৮২২১৮৫৫৩১

ঈশ্বরদীতে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর মাইক ভাংচুরের অভিযোগ

 
ইতিহাস টুয়েন্টিফোর প্রতিবেদকঃ 

ঈশ্বরদী পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রফিকুল ইসলাম নয়নের দুইটি প্রচার গাড়িতে হামলা চালিয়ে  মাইক ভাংচুর ও দলীয় কর্মীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। 

 বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় মেয়র প্রার্থী রফিকুল ইসলাম নয়ন মুঠোফোনে  ইতিহাস টুয়েন্টিফোরের কাছে মাইক ভাংচুর ও দলীয় কর্মীকে মারধরের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। 

নয়ন জানান, ঈশ্বরদী শহরের পূর্বটেংরী কদম তলা ও নূরমহল্লা এলাকায় ধানের শীষের প্রচারণা চালানোর সময় দুইটি গাড়িতে হামলা চালিয়ে মাইক ভাংচুর করা হয়। এসময় একজন দলীয় কর্মীকে মারধর করে আহত করা হয়। এজন্য তিনি ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের দায়ী করেন। 

এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য  এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক উপকমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম লিটন বলেন, বিএনপির আভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের কারণে বেশ কয়েকদিন আগেই বিএনপি একাংশ এই প্রার্থীকে বয়কট করে তাদের প্রচারণা চালাতে দিবে না বলে হুসিয়ারি দিয়েছিল। বিএনপির লোকজনই দলীয় প্রার্থীর মাইক ভাংচুর করেছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মাইক ভাংচুরের প্রশ্নই আসে না। 

পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও  নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য শফিকুল ইসলাম বাচ্চু বলেন, এটি বিএনপির আভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বের ফলে ঘটেছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয়। 

কোন মন্তব্য নেই