× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



বউভাতের দিন প্রাণ গেল বরের, হাসপাতালে নববধূ

বৌভাতের দিন মারা গেলেন বর

ইতিহাস টুয়েন্টিফোর ডেস্কঃ 

বউভাতের দিন মারা গেলেন বর মো. রফিকুল ইসলাম।

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলায় বুধবার  এ ঘটনা ঘটে।  ওই তিন সকাল সকাল ১০টায় রফিকুল অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে দুপুর ১২টার দিকে তাকে বরিশাল শের-ই- বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

কয়েকদিন আগে উপজেলার মাধবখালী ইউনিয়নের সফিকুল ইসলামের ছেলে রফিকুল ইসলামের সঙ্গে বেতাগী ভাসনদা এলাকার আবদুল মান্নানের মেয়ে ময়নার বিয়ে হয়। সোমবার (৩০ নভেম্বর) ময়নাদের বাড়িতে বিবাহোত্তর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বুধবার ছেলের বাড়িতে বৌভাতের আয়োজন করা হয়। কিন্তু মুহূর্তেই বিয়েবাড়ির আনন্দ রূপ নিল বিষাদে। সেই সঙ্গে নামে কান্নার রোল।

স্থানীয় বাসিন্দা নুরুল হক বলেন, রফিকুল ইসলাম দীর্ঘদিন ধরে থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত ছিলেন। কিছুদিন পর পর তার রক্ত পরিবর্তন করতে হতো। রফিকুল অসুস্থ থাকায় এতদিন বিয়ে করেননি। সম্প্রতি পারিবারিকভাবে তার বিয়ে হয়। সোমবার অনুষ্ঠান করে নববধূকে বাড়িতে তুলে আনেন। বুধবার ছেলের বাড়িতে বউভাতের আয়োজন করা হয়। মেয়েদের বাড়ির লোকজন ও স্থানীয় আত্মীয়-স্বজন বুধবার অনুষ্ঠানে উপস্থিত হন। এ সময় রফিকুল ইসলাম অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে বরিশাল শের-ই- বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

স্বামীর মৃত্যুর খবর পেয়ে নববধূ ময়না অজ্ঞান হয়ে পড়েন। তাকেও তাৎক্ষণিকভাবে বরিশাল শের-ই- বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

স্থানীয়রা জানায়, রফিকুল ইসলামের এমন মৃত্যু মানা যায় না। কয়েকদিন আগে বিয়ে করেছেন। আজ তার বাড়িতে অনুষ্ঠান। ভাগ্যের কী নির্মম পরিহাস! বউভাতের অনুষ্ঠানের দিন তার মৃত্যু হলো। আল্লাহ তাকে জান্নাতবাসী করুন।

মির্জাগঞ্জ উপজেলার মাধবখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মনিরুল ইসলাম তালুকদার বলেন, বুধবার রফিকুল ইসলামের বাড়িতে বউভাতের অনুষ্ঠান ছিল। অথচ এদিন সকালে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে তার মৃত্যু হলো। রাত সাড়ে ৭টার দিকে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

কোন মন্তব্য নেই