× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



পরপর ৩ গুলি, অতঃপর পাবনায় আওয়ামী লীগ কর্মীর মৃত্যু

পরপর ৩ গুলি, অতঃপর আওয়ামী লীগ কর্মীর মৃত্যুপাবনা প্রতিনিধিঃ

পাবনায় এক আওয়ামী লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা করেছে দুবৃত্তরা। তাকে চারপাশ থেকে ঘিরে  পরপর তিনটি গুলি করা হয়। রবিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার ভাঁড়ারা ইউনিয়নের আতাইকান্দা ভূষি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

দুবৃত্তের গুলিতে নিহত আমিরুল ইসলাম সদর উপজেলার ভাঁড়ারা ইউনিয়নের মুন্তাই হোসেনের ছেলে। তিনি স্থানীয় আওয়ামী লীগের একজন সক্রিয় কর্মী ছিলেন।

পুলিশ জানায়, রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার আতাইকান্দা বাজারে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন আওয়ামী লীগ কর্মী আমিরুল ইসলাম। এ সময় কয়েকজন দুর্বৃত্ত তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুর্বৃত্তরা আমিরুলকে ঘিরে ধরে এবং এরপর খুব কাছে থেকে তাকে পরপর তিনটি গুলি করে পালিয়ে যায়।

আধিপত্য বিস্তার ও বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে ভাঁড়ারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদের সঙ্গে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা সুলতান মাহমুদের বিরোধ চলে আসছিল। এরই জেরে সুলতান মাহমুদের সমর্থক আমিরুল ইসলামকে গুলি করে হত্যা করা হয় বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।

ভাঁড়ারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা সুলতান মাহমুদ বলেন, আমিরুল দীর্ঘদিন ধরে আমার সঙ্গে রাজনীতি করছেন। একজন নিরীহ মানুষ আমিরুল। তার হত্যা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসিম আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে বলেন, মৃতদেহ উদ্ধারের পর বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

কোন মন্তব্য নেই