× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



জিপিএ-৫ পেয়েও রাবিতে আবেদন বঞ্চিত ৩০ হাজারের বেশি ভর্তিচ্ছু

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে জিপিএ-৫ থাকার পরেও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার চূড়ান্ত আবেদনের জন্য মনোনীত হতে পারিনি ৩০ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী। 

এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগের (সি-ইউনিটের) সংখ্যা ৩০ হাজার। এছাড়া ‘এ’ ও ‘বি’ ইউনিটে অনেক শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ থাকার পরেও চূড়ান্ত আবেদনের সুযোগ থেকে বাদ পড়েছেন। 

সোমবার রাতে ফল প্রকাশের পর চূড়ান্ত আবেদনের জন্য মনোনীত ভর্তিচ্ছুদের এসএমএসের মাধ্যমে তা জানানো হয়েছে।

এর আগে গত ৭ মার্চ থেকে প্রাথমিক আবেদন শুরু হয়ে চলে ১৮ মার্চ রাত ১২ টা পর্যন্ত। এতে তিনটি ইউনিটে তিন লাখ আবেদন জমা পড়ে।

তবে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে জিপিএ-৫ থাকার পরেও চূড়ান্ত আবেদনের জন্য মনোনীত হয়নি বিজ্ঞান বিভাগের অনেক শিক্ষার্থী। কেবল সি-ইউনিটের সংখ্যা ৩০ হাজার। এছাড়া ‘এ’ ও ‘বি’ ইউনিটে অনেক শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ থাকার পরেও চূড়ান্ত আবেদনের সুযোগ থেকে বাদ পড়েছেন।

জানতে চাইলে আইসিটি সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক বাবুল ইসলাম বলেন, আমাদের এখানে প্রতি ইউনিটে সর্বোচ্চ ৪৫ হাজার শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। এ কারণে জিপিএ-৫ থাকার পরেও শুধুমাত্র সি-ইউনিটেই বিজ্ঞানের ৩০ হাজার শিক্ষার্থী চূড়ান্ত আবেদনের জন্য মনোনীত হয়নি। বিজ্ঞানের যেসব শিক্ষার্থীর এইচএসসিতে শতকরা ৮৪ শতাংশ নম্বর পেয়েছে তারাই মনোনীত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, একই কারণে ‘এ’ ও ‘বি’ ইউনিটেও বিজ্ঞানের অনেক শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ থাকার পরেও চূড়ান্ত আবেদনের জন্য মনোনীত হয়নি। তবে এর সংখ্যা নির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি।

প্রসঙ্গত, ১৪ জুন 'সি' ইউনিটের পরীক্ষার মধ্য দিয়ে শুরু হবে এবারের ভর্তি পরীক্ষা। চলবে ১৬ জুন পর্যন্ত। প্রতি ইউনিটে তিনটি করে মোট ৯ শিফটে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতি শিফটে ১৫ হাজার ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবে। এছাড়া এবারের পরীক্ষায় প্রতি ইউনিটে ৪৫ হাজার করে মোট ১ লাখ ৩৫ হাজার শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবেন। যেখানে অটোপাশে এইচএসসিতে জিপিএ ৫ পাওয়া শিক্ষার্থী সংখ্যা ১ লাখ ৬১ হাজার।

ভর্তি সংক্রান্ত সকল প্রয়োজনীয় তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

কোন মন্তব্য নেই