× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি আবেদন শুরু আজ

 

ইতিহাস টুয়েন্টিফোর প্রতিবেদকঃ

উচ্চশিক্ষার স্বপ্নের আঙিনা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। দেশের লাখো শিক্ষার্থী আবেদনের মাধ্যমে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আগ্রহের কথা জানিয়ে দেয়। তাই ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের তারিখ ঘোষণা করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। সেই অনুযায়ী আবেদন গ্রহণ আজ সোমবার (৮ মার্চ) থেকে শুরু হতে যাচ্ছে। 

এদিন বিকেল ৫টায় প্রশাসনিক ভবনে কেন্দ্রীয় ভর্তি অফিসে (কক্ষ নং-২১৪) আবেদনগ্রহণ প্রক্রিয়া উদ্বোধন করবেন ভিসি অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান।

অনলাইনে ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া ৮ মার্চ বিকেল ৫টা থেকে শুরু হয়ে চলবে ৩১ মার্চ রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত। একইসঙ্গে আবেদনের টাকা জমা দেয়ার শেষ তারিখ ১ এপ্রিল বৃহস্পতিবার রাত ১১ টা ৫৯টা পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়েছে।

অনলাইনে (admission.eis.du.ac.bd) ওয়েবসাইটে গিয়ে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে আগ্রহীরা আবেদন করতে পারবেন। এবার ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা হবে বিভাগীয় ৮টি শহরে। ফলে বেড়ে যাবে পরীক্ষা গ্রহণের খরচ। বাড়ানো হয়েছে আবেদন ফি। ৪৫০ টাকার পরিবর্তে ২০০ টাকা বাড়িয়ে এবার আবেদন ফি করা হয়েছে ৬৫০ টাকা। ঢাকার বাইরে পরীক্ষা নেয়া, যাওয়া-আসা, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বা কলেজে পরীক্ষা কেন্দ্রের জন্য আলাদা খরচের কারণে আবেদন ফি বাড়ানো হয়েছে। 

আবেদন যোগ্যতা: 

ভর্তিচ্ছুকে অবশ্যই ২০১৫ থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় পাস করতে হবে। শুধুমাত্র ২০২০ সালের উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা আবেদন করতে পারবেন। বিভিন্ন ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের জন্য ভিন্ন ভিন্ন যোগ্যতার প্রয়োজন।

এবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের যোগ্যতাও বাড়ানো হয়েছে। বিজ্ঞান বিভাগে (‘ক’ ইউনিটে) মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষায় (৪র্থ বিষয়সহ) প্রাপ্ত জিপিএ’র যোগফল ৮.০, এবার এই বিভাগের জন্য আবেদন করতে ন্যূনতম পয়েন্ট লাগবে ৮.৫০ (আলাদা জিপিএ ৩.৫০)। কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিটের জন্য আগের বছরগুলোতে ৭.০ লাগলেও এবার তা বেড়ে ন্যূনতম ৮.০০ লাগবে (আলাদাভাবে ৩.০) ও বাণিজ্য অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটে ৭.৫ এর পরিবর্তে এবার ন্যূনতম লাগবে ৮.০০ (আলাদাভাবে ৩.৫)। 

সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ (‘ঘ’ ইউনিটে)’র জন্য যে যেই বিভাগ থেকে আবেদন করবে সে অনুযায়ী জিপিএ থাকতে হবে। এছাড়া চারুকলা অনুষদভুক্ত ‘চ’ ইউনিটের জন্য জিপিএ-দ্বয়ের যোগফল ন্যূনতম ৭.০ (আলাদাভাবে জিপিএ ৩.০) থাকতে হবে।

পরীক্ষার মানবণ্টন:

‘ক’, ‘খ’, ‘গ’ ও ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ৬০ নম্বরের এমসিকিউ এবং ৪০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা নেয়া হবে। শুধুমাত্র ‘চ’ ইউনিটের পরীক্ষায় ৪০ নম্বরের এমসিকিউ এবং ৬০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা নেয়া হবে। ‘ক’, ‘খ’, ‘গ’ ও ‘ঘ’ ইউনিটের এমসিকিউ পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট এবং লিখিত পরীক্ষার জন্য ৪৫ মিনিট সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। ‘চ’ ইউনিটের এমসিকিউ পরীক্ষার জন্য ৩০ মিনিট এবং লিখিত পরীক্ষার জন্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৪৫ মিনিট। 

কোন মন্তব্য নেই