× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



পুলিশের গলা টিপে আসামির পলায়ন

পুলিশ

রাজশাহীর চারঘাটে এক আসামিকে ধরতে গিয়েছিলেন পুলিশের দুই এসআই। কিন্তু তাঁরা আর ওই আসামিকে ধরতে পারেননি। তাঁদের মধ্যে একজনকে হাঁসুয়া দিয়ে কুপিয়ে ও অপরজনকে গলা টিপে আসামি পালিয়ে গেছেন। বুধবার দুপুরে চারঘাটের থানাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পলাতক আসামির নাম ফারুক হোসেন (৩০)। তাঁর বাড়ি চারঘাট উপজেলার থানাপাড়া গ্রামে। হামলায় আহত দুজন হলেন চারঘাট থানার উপপরিদর্শক এসআই) আশরাফুল ইসলাম ও ফরোয়ার হোসেন। তাঁদের চারঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ফারুক হোসেন একটি মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত আসামি। নিজ বাসায় কাজ করছেন, এমন খবর পেয়ে দুই এসআই বুধবার বেলা দুইটার দিকে আসামি ফারুকের বাসায় যান। এ সময় আসামির হাতে ছোট হাঁসুয়া ছিল। হাঁসুয়ার আঘাতে এসআই ফরোয়ার হোসেনের হাত কেটে যায়। এসআই আশরাফুল আসামিকে ধরার চেষ্টা করলে আসামিসহ পরিবারের লোকজন তাঁর গলা টিপে ধরেন। 

খবর পেয়ে চারঘাট মডেল থানার এক দল ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। তবে অতিরিক্ত পুলিশ আসার আগেই আসামি পালিয়ে যান।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এসআই আশরাফুল ইসলাম মুঠোফোনে  বলেন,  আসামি যে তাঁদের সঙ্গে এ রকম মারমুখী আচরণ করবেন, এটা তাঁরা চিন্তাই করতে পারেননি। এ ধরনের মামলার আসামি সাধারণত ধরে আদালতে সোপর্দ করা হয়। তাঁরা জামিনে  বের হয়ে আসেন। গ্রেপ্তার করতে গেলে তাঁরা সসম্মানে পুলিশের সঙ্গে চলে আসেন। কিন্তু আসামি তাঁর গলা টিপে ধরেছেন। আসামির সঙ্গে তাঁর মা, বাবাসহ সবাই তাঁকে ধরেছেন।

 চারঘাট থানার এসআই আশরাফুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

 এ বিষয়ে জানতে চাইলে চারঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, তিনি রাজশাহীতে আছেন। মামলার ব্যাপারে আলাপ–আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে

কোন মন্তব্য নেই