× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে লাথি: পেটেই মারা গেল ৪ মাসের সন্তান

অনাগত সন্তান হত্যায় গ্রেফতারকৃত সিবলু প্রাং

নওগাঁর রাণীনগরে যৌতুক না পেয়ে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর পেটে লাথি মেরে অনাগত সন্তানকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্বামী-শ্বশুর-শাশুড়ি ও ভাসুরসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ভুক্তভোগী। অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত সিবলু প্রাং ওই উপজেলার পশ্চিম বালুভরা গ্রামের শাকবর আলীর ছেলে। রোববার তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে, একই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী গৃহবধূ সাথী আক্তার বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার অন্তাহার গ্রামের শাহীন মণ্ডলের মেয়ে।

সাথী আক্তারের বাবা শাহীন মণ্ডল বলেন, গত বছরের ২০ মার্চ সিবলু প্রাংয়ের সঙ্গে আমার মেয়ের বিয়ে দেই। মেয়ের সুখের জন্য বিয়ের সময় জামাইকে দেড় লাখ টাকা ও আসবাবপত্র দেই। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই ব্যবসার জন্য সাথীর কাছে দুই লাখ টাকা যৌতুক চায় সিবলু। টাকা দিতে না পারায় আমার মেয়ের ওপর নির্যাতন চালায় সে। বেশ কয়েকবার বিষয়টি সালিশের মাধ্যমে সমাধানও করেছি। এরপরও সিবলু যৌতুকের দাবিতে সাথীকে নির্যাতন করতে থাকে। এরই ধারাবাহিকতায় ৩০ মে বাবা, মা, বড় ভাইসহ নিকট আত্মীয়দের কু-পরামর্শে সিবলু আমার অন্তঃসত্ত্বা মেয়ের পেটে লাথি মারলে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। ওইদিনই সাথীকে উদ্ধার করে নওগাঁ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর চিকিৎসক জানান- আমার মেয়ের পেটের চার মাসের সন্তান পেটের মধ্যেই মারা গেছে। পরে এসব বিষয় নিয়ে স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে সাথী নিজেই তার স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করে।

রাণীনগর থানার ওসি শাহীন আকন্দ বলেন, আদালতের নির্দেশে মামলাটি আমলে নিয়ে শনিবার রাতেই অভিযুক্ত সিবলু প্রাংকে গ্রেফতার করা হয়। রোববার তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

কোন মন্তব্য নেই