× প্রচ্ছদ পাবনা-৪ উপনির্বাচন ঈশ্বরদী পাবনা জাতীয় রাজনীতি আন্তর্জাতিক শিক্ষাজ্ঞন বিনোদন খেলাধূলা বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নির্বাচন কলাম ছবি ভিডিও রূপপুর এনপিপি
Smiley face করোনা ঈশ্বরদী পাবনা বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক খেলা প্রযুক্তি বিনোদন শিক্ষা



১ অক্টোবর ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা শুরু

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হল (ফাইল ছবি)

দেশে কঠোর লকডাউন ঈদের আগ পর্যন্ত শিথিল থাকলেও ঈদের পর আরো ১৪ দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে সরকার। তাই ৩১ জুলাই থেকে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথমবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা পুনরায় পিছিয়ে ১ অক্টোবর নেয়া হবে। 

মঙ্গলবার বিকেলে ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ডিনস কমিটির সভায় পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। 

বিশ্বিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানী বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আজকে প্রথমবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। আগামী ১ অক্টোবর বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ক ইউনিটের পরীক্ষার মাধ্যমে পরীক্ষা শুরু হবে এবং বাকি পরীক্ষাগুলোও বিভিন্ন তারিখে নেয়া হবে।

ডিনস কমিটির অন্যান্য সদস্যদের থেকে পাওয়া তথ্যে জানা যায় ২ অক্টোবর কলা অনুষদভুক্ত খ ইউনিটের পরীক্ষা, ৯ অক্টোবর চারুকলা অনুষদভুক্ত চ ইউনিটের লিখিত (অঙ্কন) পরীক্ষা, বাণিজ্য অনুষদভুক্ত গ ইউনিটের পরীক্ষা ২২ অক্টোবর এবং সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ঘ ইউনিটের পরীক্ষা ২৩ অক্টোবর নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এবং চ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা (সাধারণ জ্ঞান) ৯ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে। চ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা (অংকন)-এর তারিখ যথাসময়ে জানিয়ে দেয়া হবে। এছাড়াও বাকি সব সিদ্ধান্ত ও মানবন্টন আগের রাখা হয়েছে। পরীক্ষাগুলো নেয়া হবে বিভাগীয় শহরে। 

যেখানে স্বাভাবিক নিয়মে হলে গত বছরের অক্টোবরে ভর্তি পরীক্ষা হয়ে যেত কিন্তু করোনার কারণে প্রায় ১ বছর পিছিয়ে গেলো ভর্তি পরীক্ষা। এর আগে, চলতি বছরের ৮ মার্চ থেকে শুরু হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন, চলে ৩১ মার্চ। পরে প্রথমে মে মাসের পরীক্ষার তারিখ দিলেও সেটা দুই মাস পিছিয়ে ৩১ জুলাই থেকে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সেই তারিখও পরিবর্তন করে আজ অক্টোবরে পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। 

মহামারির মধ্যে এবার ঢাকা ছাড়াও শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ বিভাগীয় শহরে ভর্তি পরীক্ষার নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি এবার পরীক্ষা পদ্ধতিতেও আনা হচ্ছে পরিবর্তন। এতোদিন মোট ২০০ নম্বরের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন হতো। সেখানে ১২০ নম্বরের পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর এবং এসএসসি ও এইচসির জিপিএর ভিত্তিতে ৮০ নম্বরের মধ্যে প্রাপ্ত নম্বর যোগ করে মেধাতালিকা তৈরি করা হত। 

এবার মোট ১০০ নম্বরের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করা হবে। এসএসসি ও এইচএসসির জিপিএর জন্য থাকছে ২০ নম্বর, বাকি ৮০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। তার মধ্যে আবার ৩০ নম্বরের এমসিকিউ এবং ৫০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা হবে।

কোন মন্তব্য নেই