ঢাকারবিবার , ২৯ আগস্ট ২০২১

ঈশ্বরদীতে ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি বাবলু মালিথার বহিস্কারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল

নিজস্ব প্রতিবেদক
আগস্ট ২৯, ২০২১ ৭:০৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

 

ঈশ্বরদীর সলিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল মজিদ বাবলু মালিথার বহিস্কারের দাবিতে জরুরী সভা করেছে সলিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের একাংশ। সভা শেষে দলীয় নেতাকর্মীরা বোর্ড অফিস মোড়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন।
২৮ আগস্ট (শনিবার) বিকেলে সলিমপুর ইউনিয়নের জয়নগরবোর্ড অফিস মোড়ে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সিরাজ উদ্দিন বিশ্বাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক নায়েক (অবঃ) এম এ কাদের এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন সলিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের অন্যতম সহ-সভাপতি আমিনুল ইসলাম মালিথা,যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আব্দুর বারী, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এনামুল হক মাষ্টার, ক্রীড়াসম্পাদক মুরাদ হোসেন বাবু, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক আব্দুর রহিম মুন্সি,স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মান্নান, নির্বাহী সদস্য আক্কাস মেম্বার, আব্দুররহিম মালিথাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।বক্তারা বলেন, দলীয় পদপদবী ব্যবহার করে আব্দুল মজিদ বাবলু মালিথা পরিকল্পিতভাবে আওয়ামীলীগকে ধ্বংস করে দিচ্ছেন। জামাত-বিএনপির সাথে গোপন আঁতাত করে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন বলেও অভিযোগ করা হয়। বক্তারা আরও বলেন, বিগত সময়ে সলিমপুরে নাশকতার ঘটনায় দায়েরকৃত অসংখ্য মামলায় গোপন আঁতাত ও মোটা অংকেরটাকার বিনিময়ে সকল মামলা নিস্পত্তি করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়। এছাড়াও সরকারী বিভিন্ন সুবিধা প্রদানের ক্ষেত্রে দলীয় নেতাকর্মীদের চরম অবমূল্যায়ন করা হয়। নেতৃবৃন্দ আরও অভিযোগ করেন, বিগত আন্দোলন সংগ্রামের সময় জয়পুরহাটেরপ্রভাবশালী জামায়াত নেতা মাওঃ নজরুল ইসলাম গুম হয়েছে এমন খবরে দেশব্যাপী ব্যাপক উত্তেজনা শুরু হলে ঘটেযায় নানা সহিংস ঘটনা। সেই সময় ওই জামায়াত নেতা মাওঃ নজরুল ইসলাম আব্দুল মজিদ বাবলু মালিথার বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন বলেও অভিযোগ করা হয় সভায়। পরে বাবলু মালিথার বহিস্কার ও শাস্তির দাবিতে একটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।
এসময় বক্তারা আরো বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুব রহমানকে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করে বিভিন্ন দিবস পালন করে একের পর বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন ঈশ্বরদীর সলিমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ বাবলু মালিথা। গত ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচীতে শোক পতাকা (কালো পতাকা) বাদেই উত্তোলন করেন জাতীয়সহ দলীয় পতাকা।শোক দিবসের কর্মসূচীতে শোক পতাকা উত্তোলন না করেই কর্মসূচী পালন করায় বাবলুমালিথার বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।শোক পতাকা বাদে অন্যসব পতাকা উত্তোলনের সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমফেসবুকে ছড়িয়ে ভাইরাল করে দেন দলীয় নেতাকর্মীরা। তীব্র সমালোচনা হয় পুরো ঈশ্বরদী জুড়েই।
অপর দিকে গত ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে কেরামবোর্ডে কেক কেটে সেই সময় তুমুল বিতর্কের ঝড় তোলেন বাবলুমালিথা। সেই ছবিসহ সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ হলে ব্যাপক সমালোচনারমুখে পড়েন তিনি। এছাড়াও দলীয় চেয়ারম্যান হলেও বিভিন্ন কর্মসূচীতেঅনুপুস্থিতসহ দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের অবমূল্যায়নের অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

error: Please Stop!!You can not copy this content becuase this site content is under protection. Thank You Itihas24 Developer Team