ঢাকারবিবার , ২৯ আগস্ট ২০২১

পাবনায় আন্তঃজেলা ৭ ডাকাত গ্রেফতার, অস্ত্র-মালামাল উদ্ধার

জেলা প্রতিনিধি
আগস্ট ২৯, ২০২১ ৮:০১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পাবনা সদর উপজেলায় সম্প্রতি চাঞ্চল্যকর ডাকাতির ঘটনায় পুলিশের অভিযানে ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে আন্তঃজেলা ডাকাদলের দলনেতাসহ সাতজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
অভিযানে লুণ্ঠিত মালামাল এবং অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্রসহ ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।
রোববার (২৯ আগস্ট) দুপুরে পাবনা সদর থানা চত্বরে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান পুলিশ সুপার মো. মহিবুল ইসলাম খান।
তিনি বলেন, গত ২৪ আগস্ট মধ্যরাতে সদর উপজেলার মালঞ্চি বাজারে নৈশপ্রহরীকে বেঁধে রেখে চারটি দোকানের তালা ভেঙে নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার, ফ্রিজ, টেলিভিশন, মোবাইলফোনসহ প্রায় ১৬ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায় ডাকাতরা। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পরে জেলা পুলিশের একটি চৌকস দল ৩৬ ঘণ্টা পাবনা, সিরাজগঞ্জ, গাজীপুর ও ঢাকা জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ডাকাত দলের সর্দার আমিনুল ইসলামসহ সাতজনকে গ্রেফতার করে। পরে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত পিকআপভ্যান, সিএনজিচালিত অটোরিকশা, তাজাগুলিসহ একটি অবৈধ শাটারগান জব্দসহ লুণ্ঠিত মালামাল উদ্ধার করা হয়। আটকদের বিরুদ্ধে পাবনা জেলাসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি ও চুরির মামলা রয়েছে বলে জানান তিনি।
প্রেস ব্রিফিংয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার স্নিগ্ধ আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সপুার (সদর সার্কেল) রোকনুজ্জামান, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম, ডিবির ওসি মো. আব্দুল হান্নানসহ অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
পুলিশ সুপার বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এই মালঞ্চি বাজারে এক ডাকাত কাজ করতো। সেই ডাকাতের পরিকল্পনা অনুসারে জেলার বাইরের ডাকাত দলের সদস্যরা একত্রিত হয়ে এই ডাকাতি করে। গ্রেফতারকৃত ডাকাতদের নামে জেলা এবং জেলার বাইরের বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি ও চুরির মামলা রয়েছে। এই চক্রের আরো চার/পাঁচজন সদস্য পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। গ্রেফতারকৃত ডাকাতদের আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করা হবে।
উদ্ধারকৃত মালামালের মধ্যে একটি মিনি ট্রাক, একটি অটোরিকশা, ১৩ টি ফ্রিজ, পাঁচটি টেলিভিশন, ৫টি মোবাইল ফোন, নগদ অর্থসহ ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন সরঞ্জামাদি রয়েছে।

error: Please Stop!!You can not copy this content becuase this site content is under protection. Thank You Itihas24 Developer Team