ঢাকারবিবার , ১৪ নভেম্বর ২০২১

প্রত্যাহারের আদেশ পেয়ে এজলাসে বসেননি সেই বিচারক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নভেম্বর ১৪, ২০২১ ১:৫৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ধর্ষণের ঘটনার ৭২ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলে পুলিশকে মামলা না নেওয়ার পর্যবেক্ষণ দেওয়া বিচারক মোছা. কামরুন্নাহারের ফৌজদারি বিচারিক ক্ষমতা সাময়িকভাবে প্রত্যাহার করা হয়েছে। প্রত্যাহারের আদেশ পেয়ে তিনি এজলাসে বসেননি।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আজ সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে আদালতে পৌঁছান বিচারক বেগম মোছা. কামরুন্নাহার। আদালতে সকাল সাড়ে ১০টায় বিচারকাজ শুরু হয়। তবে বিচারকাজ শুরু হওয়ার আগেই খাস কামরায় বসেই উচ্চ আদালতের নির্দেশনা পান তিনি। এরপর আর এজলাসে বসেননি।

ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (এপিপি) আফরোজা ফারহানা আহম্মেদ অরেঞ্জ আজ সাড়ে ১০ টার দিকে এজলাস বসার কথা ছিল। বিচারক এজলাস করতে সকালে আদালতে এসে খাস কামরায় বসেন। এরপর প্রত্যাহারের আদেশ পেয়ে এজলাসে বসেননি তিনি।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ বিচারপতিদের সঙ্গে আলোচনাক্রমে ওই বিচারককে রোববার সকাল ৯টা ৩০ মিনিট থেকে আদালতে না বসার নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানায় সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। একইসঙ্গে তাকে আইন মন্ত্রণালয়ে সংযুক্ত করতে সুপ্রিম কোর্ট থেকে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

রোববার (১৪ নভেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার ও মুখপাত্র মোহাম্মদ সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ বিচারপতিদের সঙ্গে আলোচনাক্রমে ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোছা. কামরুন্নাহারকে সকাল ৯টা ৩০ মিনিট থেকে আদালতে না বসার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

error: Please Stop!!You can not copy this content becuase this site content is under protection. Thank You Itihas24 Developer Team