ঢাকামঙ্গলবার , ১৬ নভেম্বর ২০২১

প্রিয় ক্যাম্পাসেই শায়িত হবেন হাসান আজিজুল হক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নভেম্বর ১৬, ২০২১ ৯:২০ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বাংলা ভাষার অন্যতম প্রধান কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। গতকাল সোমবার রাত সোয়া ৯টার দিকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের হাউজিং সোসাইটিতে নিজ বাসভবন উজানে মৃত্যুবরণ করেন তিনি। তাঁর বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। তিনি এক পুত্র, তিন কন্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তাঁর মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক জানিয়েছেন।

হাসান আজিজুল হক বেশ কিছুদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। বার্ধক্যজনিত সমস্যা ছাড়াও তিনি হার্টের সমস্যা ও ডায়াবেটিস রোগে ভুগছিলেন। তাঁর শরীরে লবণের ঘাটতিও ছিল। করোনার কারণে চিকিৎসকের পরামর্শে নিজ বাসায়ই তাঁর চিকিৎসা চলছিল। পরে আরো বেশি অসুস্থ হয়ে পড়লে গত ২১ আগস্ট এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে তাঁকে ঢাকায় আনা হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) দুই সপ্তাহ চিকিৎসা নেন তিনি। শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে ৯ সেপ্টেম্বর তাঁকে রাজশাহীতে নিয়ে আসা হয়। এরপর নিজ বাসায়ই চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য তাঁর মরদেহ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে রাখা হবে। দুপুর ১টা পর্যন্ত সেখানে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী জেলা প্রশাসন, রাজশাহী সিটি করপোরেশন, সাংস্কৃতিক, সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবীসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হবে। বাদ জোহর বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে তাঁর জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। শেষে প্রিয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কবরস্থানেই তাঁকে দাফন করা হবে।

হাসান আজিজুল হকের মৃত্যুর সংবাদ শোনার সঙ্গে সঙ্গে গত রাতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার, উপ-উপাচার্য চৌধুরী মো. জাকারিয়া, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান-উল-ইসলাম, প্রক্টর লিয়াকত আলীসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ রাজশাহীর সাংস্কৃতিক অঙ্গনের ব্যক্তিবর্গ তাঁর বাসায় যান। তাঁরা তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন। একই সঙ্গে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

১৯৭৩ সালে হাসান আজিজুল হক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন। ২০০৪ সালে তিনি অবসর নেন। বাংলা সাহিত্যে অবদানের জন্য তিনি ১৯৭০ সালে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯৯ সালে একুশে পদক এবং ২০১৯ সালে স্বাধীনতা পুরস্কার লাভ করেন এই লেখক। অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক ১৯৩৯ সালের ২ ফেব্রুয়ারি বর্তমান ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার যবগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

error: Please Stop!!You can not copy this content becuase this site content is under protection. Thank You Itihas24 Developer Team