ঈশ্বরদীর সবশেষ নিউজ । ইতিহাস টুয়েন্টিফোর
ঢাকারবিবার , ১৬ জানুয়ারি ২০২২

চাঁদা না পেয়ে নবনির্বাচিত মেম্বারকে হত্যা

বিশেষ প্রতিবেদক
জানুয়ারি ১৬, ২০২২ ৬:৫৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চাঁদার টাকা না দেওয়ায় যশোরের অভয়নগর উপজেলার সুন্দলী ইউনিয়নের নবনির্বাচিত মেম্বার উত্তম সরকারকে হত্যা করা হয়েছে। কথিত ‘নিউ বিপ্লবী কমিউনিস্ট’ পার্টির সদস্যরা তাকে হত্যা করে। এ ঘটনায় গত দুদিনে পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়।
রোববার (১৬ জানুয়ারি) দুপুরে প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান যশোরের ডিবির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ও পুলিশের মুখপাত্র রুপন কুমার সরকার।
গ্রেফতাররা হলেন- খুলনার ডুমুরিয়া থানার রুদাঘরা গ্রামের ইসাহাক গোলদারের ছেলে ইকরামুল গোলদার, একই উপজেলার দিঘলিয়া গ্রামের মৃত বিষ্ণুপদ মন্ডলের ছেলে বিজন কুমার মন্ডল ওরফে বিনোদ, চুকনগর এলাকার ভাড়াটিয়া সাতক্ষীরার শ্যামনগরের দক্ষিণ কদমতলা গ্রামের মৃত শিব পদ মন্ডলের ছেলে প্রশান্ত মন্ডল, যশোরের অভয়নগর উপজেলার সুন্দলী গ্রামের মৃত নিতাই বিশ্বাসের ছেলে প্রজিৎ বিশ্বাস ওরফে বুলেট ও মণিরামপুরের সুজাতপুর গ্রামের পরিতোষ বিশ্বাসের ছেলে পল্লব বিশ্বাস।
তাদের কাছ থেকে একটি ওয়ান শুটারগান, একটি এয়ারগান, তিন রাউন্ড গুলি, দুটি গুলির খোসা, ছয় রাউন্ড ১২ বোর কার্তুজ, একটি লোহার রড, একটি ককটেল, ১০ গ্রাম বোমা তৈরির পাউডার (গান পাউডার), ৫০ গ্রাম বোমা তৈরির তারকাটা, উত্তম মেম্বার হত্যার মিশনে আসামিদের ব্যবহৃত পাঁচটি মোবাইল ফোন, দুটি মোটরসাইকেলসহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
প্রেস ব্রিফিংয়ে ডিবির ওসি ও পুলিশের মুখপাত্র রুপন কুমার সরকার বলেন, আসামিরা সংঘবদ্ধ কথিত ‘নিউ বিপ্লবী কমিউনিস্ট’ পার্টির সক্রিয় সদস্য। তারা দলীয় ছদ্মনাম ব্যবহার করে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলায় অবৈধ অস্ত্রগুলি, বিস্ফোরকদ্রব্য ইত্যাদি ব্যবহার করে হত্যা, চাঁদাবাজি করে চলেছে। এর আগে আত্মসমর্পণ করে আবার তারা সংঘবদ্ধ হয়ে নতুন সদস্য নিয়ে দল গঠন করে যশোরের অভয়নগর, মণিরামপুর, কেশবপুরসহ আশপাশের জেলায় মাছের ঘের দখল, চাঁদাবাজি ও হত্যাকাণ্ড ঘটাচ্ছে।
রুপন কুমার আরও বলেন, ১০ জানুয়ারি অভয়নগরের হরিশপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য উত্তম সরকারের কাছ থেকে চাঁদার টাকা না পেয়ে তাকে গুলি করে হত্যা করে। ঘটনার পরদিন অভয়নগর থানায় মামলা হলে পুলিশ সুপারের নির্দেশে তদন্তে নামে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ।
প্রেস ব্রিফিংয়ে আরও বলা হয়েছে, হত্যার পরে জড়িতরা বিভিন্ন জনের কাছে চাঁদা চাওয়ার সময় উত্তম সরকারকে খুন করার রেফারেন্স টেনে মোবাইল ফোনে ভয়ভীতি দেখায়। ডিবি পুলিশ পরিদর্শক শেখ শাহিনুর রহমানের নেতৃত্বে একটি টিম ১৫ থেকে ১৬ জানুয়ারি ভোর পর্যন্ত খুলনার ডুমুরিয়া থানার বিভিন্ন এলাকা, যশোরের অভয়নগর, মণিরামপুর ও কেশবপুর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পাঁচজনকে গ্রেফতার করে। তাদের কাছে থাকা হত্যার মিশনে ব্যবহৃত অস্ত্রগুলি, বিস্ফোরকদ্রব্য, মোবাইল ফোন, মটরসাইকেল জব্দ করা হয়।
আটকদের এসআই শামীম হোসেন বাদী হয়ে অভয়নগর ও মণিরামপুর থানায় পৃথক দুটি মামলা করেছেন। এর আগেও তাদের বিরুদ্ধে একাধিক হত্যা, চাঁদাবাজি মামলা রয়েছে।

error: Please Stop!!You can not copy this content becuase this site content is under protection. Thank You Itihas24 Developer Team
AllEscort