ভয়াবহ দাবানলে পর্তুগাল-ফ্রান্সে ৩২২ জনের মৃত্যু » Itihas24.com
ঈশ্বরদী২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
ঈশ্বরদীর সবশেষ নিউজ । ইতিহাস টুয়েন্টিফোর

ভয়াবহ দাবানলে পর্তুগাল-ফ্রান্সে ৩২২ জনের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক
জুলাই ১৮, ২০২২ ১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ভয়াবহ দাবানলে বিপর্যস্ত ইউরোপ। ফ্রান্স, পর্তুগাল এবং স্পেনে অতিরিক্ত গরম থেকে সৃষ্ট দাবানলে বাড়ছে হতাহতের সংখ্যা। সপ্তাহখানেক ধরে চলা দাবানল নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খাচ্ছে দমকলকর্মীরা। প্রতিদিনই বাড়ছে এই দাবানলের ভয়াবহতা। এখন পর্যন্ত দাবানলে পর্তুগালে ২৩৮ জন ও স্পেনে ৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। পুড়ছে কয়েক হাজার হেক্টর জমি।

আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, এরই মধ্যে দাবানলের কারণে ফ্রান্সের গিরোন্ডে অঞ্চলে ১২ হাজারের বেশি মানুষকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। সেখানে ১০ হাজার হেক্টর এলাকাজুড়ে ছড়িয়েছে দাবানল। দেশটির আটলান্টিক উপকূলের ২২ অঞ্চলে জারি করা হয়েছে অরেঞ্জ এলার্ট। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে তিন হাজার কর্মী।

পর্তুগালের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে এখন পর্যন্ত দাবানলে ৩০ হাজার হেক্টর জমি পুরে গেছে। গত বৃহস্পতিবার পর্তুগালের মধ্য ও উত্তরাঞ্চলের পাঁচটি এলাকায় ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে, যা জুলাই মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। গত শুক্রবার উত্তর পর্তুগালের ব্রাগানকা অঞ্চলে আগুন নেভানোর কাজে নিয়োজিত একটি উড়োজাহাজ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে নিহত হয়েছেন উড়োজাহাজের এক পাইলট।

গত বৃহস্পতিবার পর্তুগালের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মার্তা টেমিডো বলেন, দাবানলের কারণে স্বাস্থ্যব্যবস্থা ‘উদ্বেগজনক’ পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছে। অতিরিক্ত গরম থেকে দেশটিতে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা।

সাধারণের চেয়ে এবার অনেক আগেই দাবদাহের কবলে স্পেন। চলতি বছরে এটি স্পেনে দ্বিতীয় তাপপ্রবাহ।শনিবার স্পেনে ৪৫ দশমিক ৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। দাবানলে শুধুমাত্র সিয়েরা ডেলা অঞ্চলেই পুড়েছে ১৩ হাজার হেক্টর জমি ।

স্পেনের পরিবেশ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা সারাদেশে ১৭টি দাবানল নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। দক্ষিণাঞ্চলের মিজাস পাহাড়ে দাবানল ছড়িয়ে পড়ায় খালি করা হয়েছে আটি গ্রাম।

ইতালিতে দাবানল ছড়িয়ে পড়ার কারণে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। গ্রিসের ৫০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ছড়িয়ে পড়া দাবানল বাতাসের গতির কারণে নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খাচ্ছে কর্মীরা।

এদিকে মরক্কোর ৪ প্রদেশে কয়েকটি গ্রামের বাসিন্দাদের দাবানলের কারণে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

আবহাওয়ার এমন বিরূপ অবস্থার জন্য জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবকে দায়ী করছেন আবহাওয়াবিদরা। এমন অবস্থায় স্থানীয় বাসিন্দাদের পর্যাপ্ত পানি পান করা এবং যতটা সম্ভব বাড়িতে থাকার পরামর্শ দিয়েছে বিশেষজ্ঞরা।

author avatar
SK Mohoshin

বিজ্ঞাপন

BONOLOTA IT POS ads