পাবনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদ ‘অবরুদ্ধ’ » Itihas24.com
ঈশ্বরদী১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
ঈশ্বরদীর সবশেষ নিউজ । ইতিহাস টুয়েন্টিফোর

পাবনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদ ‘অবরুদ্ধ’

নিজস্ব প্রতিবেদক
ডিসেম্বর ১৯, ২০২৩ ৬:৫৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পাবনা-১ (সাঁথিয়া ও বেড়া আংশিক) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যাপক আবু সাইয়িদের নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। তাকে প্রায় ২ ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। পরে সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আলপনা ইয়াসমিনের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।
মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে সাঁথিয়ার বোয়ালমারী বাজারে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুপুর দেড়টার দিকে নির্বাচনী প্রচারণায় বেরিয়ে বোয়ালমারী বাজারে সাংবাদিকদের সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন অধ্যাপক আবু সাইয়িদ। এ সময় পাশ দিয়ে নৌকার মিছিল যাচ্ছিল। হঠাৎ মিছিলকারীরা স্লোগান দিতে দিতে আবু সিইয়িদকে ঘিরে ধরেন। দুপক্ষের মাঝে অবস্থান নেয় পুলিশ।
পুলিশ বারবার উভয় পক্ষকে সরে যেতে বলে, কিন্তু কেউই সরে যাননি। অধ্যাপক আবু সাইয়িদ অবশ্য পাশে একটু সরে গিয়ে অবস্থান নেন। নৌকার সমর্থকরা তাদের জায়গায় দাঁড়িয়ে স্লোগান দিতে থাকেন।
সাঁথিয়া পৌরসভার মেয়র মাহবুবুল আলম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সোহেল রানা খোকন ও বেড়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেজবাহ মোল্লার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অধ্যাপক আবু সাইয়িদকে চলে যাওয়ার জন্য নানা স্লোগান দিতে থাকেন।
প্রায় দুই ঘণ্টা পর সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইয়াসমিন উভয় পক্ষকে ঘটনাস্থল থেকে সরে যেতে বাধ্য করেন। পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।
এ সময় অধ্যাপক আবু সাইয়িদের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট ও বেড়া পৌরসভার সাবেক মেয়র আব্দুল বাতেন বলেন, সরকার ও প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন নিরপেক্ষ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কিন্তু আপনারা আজ দেখলেন কীভাবে আমাদের অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এটা কি নির্বাচনের স্বাভাবিক পরিবেশ বা নিরপেক্ষ পরিবেশ?

এ বিষয়ে সাঁথিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সোহেল রানা খোকন বলেন, নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা দেওয়ার অভিযোগ সত্য নয়। আজ নৌকার প্রার্থী শামসুল হক টুকুর নির্বাচনী প্রোগ্রাম ছিল। সেই প্রোগ্রাম বাধাগ্রস্ত করতে অধ্যাপক আবু সাইয়িদ এলাকায় এসেছিলেন। তারাই আমাদের মিছিলের সামনে গাড়ি রেখে মিছিল বাধাগ্রস্ত করেন।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৬ সালে সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে পাবনা-১ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন আবু সাইয়িদ। সেবার তিনি তথ্য প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। পরে তিনি গণফোরামে যোগ দেন।

২০০১ সালের অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে, ২০১৪ সালের দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে এবং ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গণফোরাম থেকে পাবনা-১ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হন আবু সাইয়িদ।

বিজ্ঞাপন

BONOLOTA IT POS ads